তিস্তা চুক্তি সইয়ের উদ্যোগ নিয়েছি: সুষমা

পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ বলেছেন, “বাংলাদেশের সঙ্গে তিস্তার পানি বন্টন চুক্তি করার জন্য উদ্যোগ নিয়েছে (ভারত) সরকার। দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ সোমবার দিল্লির জওহরলাল নেহেরু ভবনে সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বে বিজেপি সরকারের ১০০ দিন উপলক্ষে তিনি এ সংবাদ সম্মেলন করেন।

সুষমা বলেন, “আমি যখন ঢাকায় গিয়েছিলাম তখনই বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাহমুদ আলীকে বলে এসেছি দিল্লি ফিরেই এ বিতর্কিত বিষয় সমাধানে উদ্যোগ নেব। এখন সেই উদ্যোগ নিয়েছি।”

ভারত-বাংলাদেশ ছিটমহল বিনিময় ও স্থল সীমান্ত চুক্তি প্রটোকল বাস্তবায়ন বিষয়ে সুষমা স্বরাজ বলেন, “এ বিষয়ে সংবিধান সংশোধনী বিলটি ভারতের রাজ্যসভায় উত্থাপিত হয়েছে। গত ৩১ ডিসেম্বর বিলটি লোকসভা ও রাজ্যসভার সাংসদদের নিয়ে গঠিত স্ট্যান্ডিং কমিটিতে পাঠানো হয়েছে। ভারতে নতুন সরকার গঠনের পর স্ট্যান্ডিং কমিটি পুনর্গঠিত হয়েছে। সেখানে এখন রাজনৈতিক আলোচনা চলছে। ওই রিপোর্ট জমা পড়ার পর কেন্দ্রীয় সরকার বিলটি নিয়ে সিদ্ধান্ত নেবে।”

তিনি বলেন, “কংগ্রেস সাংসদ শশী থারুরের নেতৃত্বে গঠিত ওই কমিটিতে বিজেপিসহ সব দলের প্রতিনিধি রয়েছেন। বিলটি স্ট্যান্ডিং কমিটির প্রথম বৈঠকের আলোচ্যসূচিতেও রাখা হয়েছে। ভারতের পার্লামেন্টের প্রথা অনুযায়ী আগামী নভেম্বরে শীতকালীন অধিবশনের প্রথম সপ্তাহে কমিটির চেয়ারম্যান বিলটি মতামতসহ লোকসভায় জমা দেবেন।”

উলফা নেতা অনুপ চেটিয়াকে ভারতে ফিরিয়ে আনার বিষয়ে সুষমা বলেন, ঢাকায় আলোচনার সময় তিনি বিষয়টি উত্থাপন করেছেন। বাংলাদেশ সরকার বিষয়টি বিবেচনা করছে। তবে এ নিয়ে কোন সময়সীমা নির্দিষ্ট হয়নি।

আগামী ২০ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী যৌথ পরামর্শ কমিটির বৈঠকে সুষমা স্বরাজ, পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় ও সিকিমের মুখ্যমন্ত্রী পবন চামলিংয়ের সঙ্গে এ বিষয়ে কথা বলবেন। সূত্র: ওয়েবসাইট

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।