কবে খুলবে কুমিল্লা সিটিপার্ক? - খবর তরঙ্গ
শিরোনাম :

কবে খুলবে কুমিল্লা সিটিপার্ক?



অনলাইন ডেস্ক, (খবর তরঙ্গ ডটকম)

বিদ্যুৎস্পৃষ্টে শিক্ষার্থী নিহতের ঘটনায় অনির্দিষ্ট সময়ের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে কুমিল্লা সিটিপার্ক। তবে অনাকাঙ্খিত এ মৃত্যুকে কেন্দ্র করে সিটিপার্কটি বন্ধ রাখার বিষয়টি মেনে নিতে পারছেনা বিনোদন পিয়াসীরা। বন্ধ ঘোষণার পর থেকে প্রতিদিনই হাজারো দর্শনার্থী সিটিপার্কের বন্ধ ফটক থেকে মন খারাপ করেই তাদের সন্তানদের নিয়ে বাড়ি ফিরে যাচ্ছেন।

কুমিল্লা মহানগরীসহ দূরদুরান্ত থেকে আগত দর্শনার্থীদের দাবি বিনোদনের জন্য সিটিপার্কটি খুলে দেয়া প্রয়োজন। আর অনাকাঙ্খিত এ মৃত্যুকে কেন্দ্র করে সিটিপার্কটি বন্ধ না রেখে যথাযথ প্রক্রিয়া অনুসরণ করে পাকর্টি খুলে দিয়ে বিনোদন পিয়াসীদের অবসর যাপনের ব্যবস্থা করে দেন।

জানা যায়, গত ২৫ অগাস্ট ম্যাজিক বোর্ডের পাশে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মারা যায় ছোটরা এলাকার কলেজ শিক্ষার্থী রায়হান। তারপরেই সিটি কর্পোরেশন ও জেলা প্রশাসন সিটিপার্কটি অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করেন। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ জানান, সিটিপার্কের রাইডগুলো বিশেষজ্ঞদের মাধ্যমে নিরাপত্তার বিষয়টি যাচাই বাছাই করে সনদ পাওয়ার তারপরেই পার্কটি চালু করা হবে।

এদিকে ঘটনার ৯ দিন পার হয়ে গেলেও সিটিপার্ক খোলার ব্যাপারে দৃশ্যমান কোন সিদ্ধান্ত নিতে পারছেনা সিটি কর্পোরেশন ও কুমিল্লা জেলা প্রশাসন। এ নিয়ে বিনোদন পিয়াসীদের মনে ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে। কোরবানির ঈদের পরে এবং গত শুক্র-শনি ও রবিবার জন্মাষ্টমী উপলক্ষে ছুটিতে হাজারো দর্শনার্থী বেড়াতে এসেছিলেন কুমিল্লা সিটিপার্কে। তবে সিটিপার্কের মূল ফটক বন্ধ দেখে হতাশ হয়ে স্ত্রী সন্তান নিয়ে বাড়ি ফিরেন।

সরকারি ছুটির দিন ছাড়াও প্রায় প্রতিদিন হাজারো বিনোদন পিয়াসীরা তাদের সন্তানদের নিয়ে এসে ফিরে যাচ্ছেন। এদিকে গত শুক্র-শনি এবং রবিবার জন্মাষ্টমি উপলক্ষে উপচেপড়া দর্শনার্থীদের ভীড় ছিলো সিটিপার্কের পাশে। তবে পার্কটি বন্ধ থাকায় সরকারি ছুটি উপলক্ষে বেড়াতে আসা লোকজন ফিরে গেছেন।

রবিবারে সরেজমিনে নগরীর ধর্মসাগরপাড়স্থ সিটিপার্কে গিয়ে দেখা যায় শত দর্শনার্থী সিটিপার্কের মূল ফটকে দাঁড়িয়ে আছেন। দর্শনাথীরা জানতে চান কেন এখনো পার্কের ফটক বন্ধ করে রাখা হয়েছে।

কুমিল্লা নাঙ্গলকোট এলাকা থেকে স্ত্রী এক ছেলে এক মেয়ে নিয়ে সিটিপার্কে বেড়াতে আসেন বেসরকারি ব্যাংকের কর্মকর্তা উসমান কবির। পার্কটি বন্ধ দেখে হতাশ হয়ে তিনি বলেন, সারা পৃথিবীতে এসব রাইডে নানা দুর্ঘটনা ঘটে, তাই বলে পুরো প্রক্রিয়াকে দোষারোপ করা ঠিক হবে না। কারণ মাথা ব্যথায় মাথা কেটে ফেলা কোন সমাধান নয়। আমরা আশা করবো কর্তৃপক্ষ যথাযথ পদক্ষেপ অনুসরণ করে দ্রুতই পার্কটি খুলে দিবে।

তবে জন্মাষ্টমি উপলক্ষে সরকারি বন্ধ উপলক্ষে সিটিপার্কে বেড়াতে আসা দর্শনার্থীদের মধ্যে সঞ্চিতা রানী দেবনাথ ক্ষোভ প্রকাশ করে জানান, ঘটনার নয় দিন পার হয়ে গেছে। এখনো পার্কটি খুলে দেয়া হচ্ছে না। আমরা যে দূরে গিয়ে একটু অবসর যাপন করবো তা সবার পক্ষে সম্ভব না। সিটিপার্কটিতে অল্প খরচে আমাদের শিশু সন্তানদের নিয়ে একটু অবসর যাপন করতে পারি। এখন পার্কটিতে নতুন রাইড স্থাপনে আমাদের বিনোদনে নতুন মাত্রা যোগ হয়েছিলো। কিন্তু একটি অনাকাঙ্খিত ঘটনার কারণে পার্কটি বন্ধ রেখে আমাদের মতো মধ্যবিত্তদের বিনোদন থেকে বঞ্চিত রাখার কোন মানে হতে পারে না। আমি আশা করবো কর্তৃপক্ষ খুব দ্রুতই পার্কটি খুলে দিবেন।

এদিকে নগরীর বিশিষ্টজনরাও পার্কটি খোলার ব্যাপারে তাদের মতামত জানান, আবেগতাড়িত হয়ে কিংবা আক্রোশের বশবর্তী হয়ে নগর উদ্যান কিংবা সিটি পার্ক নিয়ে নানা অযাচিত সমালোচনা করা হচ্ছে। যা অনভিপ্রেত। নিরাপত্তাজনিত সমস্যা থাকলে তা সমাধান করা অবশ্য দরকার। তবে পার্ক সম্পূর্ণ বন্ধ রেখে- মানুষকে বিনোদন থেকে বঞ্চিত রেখে কোন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা কোনভাবেই কাম্য নয়।

এদিকে পাকর্টি খোলার বিষয়ে কি সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছে কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন এমন বিষয়ে মেয়র মো:মনিরুল হক সাক্কু জানান, যে ছেলেটি বিদ্যুৎস্পৃষ্টে মারা গেছে তা একটি অনাকাঙ্খিত ঘটনা। এ নিয়ে আমি দু:খ প্রকাশ করছি। নিহতের বাড়িতে গিয়ে তাদের প্রতি সমবেদনাসহ সর্বাত্মক সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছি। এ ঘটনাতো আর ইচ্ছে করে কেউ ঘটায়নি। পার্ক কবে নাগাদ খুলে দেয়া হবে এ প্রশ্নের জবাবে মেয়র মনিরুল হক সাক্কু জানান, অচিরেই জেলা প্রশাসক -পুলিশ সুপারের সাথে সমন্বয়ের মাধ্যমে রাইডগুলোতে আরো ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করে অচিরেই সিটিপার্কটি খুলে দেয়া হবে।

এ বিষয়ে কুমিল্লা জেলা প্রশাসক মো: আবুল ফজল মীর জানান, পার্কটি বন্ধ থাকুক এটা আমরাও চাই না। তবে এখানে যারা রাইডগুলো পরিচালনা করেন তাদের কাছে কিছু শর্ত দিয়েছি। তারা শর্তগুলো পূরণ করলে পার্ক খুলে দেয়া হবে। রাইডের মালিকদেরকে বলা হয়েছে তাদের রাইডগুলো যে নিরাপদ তা যেন বিশেষজ্ঞদের মাধ্যমে পরীক্ষা করিয়ে আমাদের কাছে প্রাপ্ত নিরাপত্তা উপস্থাপন করে। তার পরেই সিটিপার্কটি খুলে দেয়া হবে।


এ সম্পর্কিত আরো খবর

Uncategorized এর অন্যান্য খবরসমূহ
পূর্বের সংবাদ