নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু হবে, দুর্নীতিবাজরা ক্ষমতায় আসলে দেশ পিছিয়ে পড়বে: প্রধানমন্ত্রী

গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে ১৪ দলের সংলাপ চলছে। রবিবার রাত সাড়ে ৭টার পর এই সংলাপ শুরু হয় বলে জানা গেছে।

সংলাপের সূচনা বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী বলেন, অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। দুর্নীতিবাজ ও হত্যাকারীরা ক্ষমতায় আসলে দেশ ফের পিছিয়ে পড়বে।

তিনি আরো বলেন, উন্নয়ন দেখে মানুষ নৌকায় ভোট দিবে।

এসমময় ১৪ দলের নেতাদের তিনি চোখ কান খোলা রেখে সতর্ক থাকার আহ্বান জানান।

এদিকে সোমবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে জাতীয় পার্টির এবং আগামী মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৭টায় বাম জাতীয় জোটের সঙ্গে সংলাপে বসার কথা রয়েছে।

এর আগে ১ নভেম্বর গণভবনে প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে ১৪ দলের সঙ্গে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতাদের সংলাপ হয়।

কিন্তু ওইদিনের সংলাপে সন্তুষ্ট হতে না পেরে স্বল্প পরিসরে সংলাপ আহ্বানের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে ফের চিঠি দিয়েছে ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বাধীন জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট।

রবিবার সকাল সাড়ে ১০টায় ধানমণ্ডি ৩ নম্বরে আওয়ামী লীগ অফিসের উদ্দেশে চিঠি নিয়ে রওনা দেন ঐক্যফ্রন্ট নেতা আ অ ম শফিক উল্লাহ ও জগলুল হায়দার আফ্রিক।

এর পর দুপুর ১২টার দিকে ঐক্যফ্রন্ট নেতারা ধানমণ্ডি আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর কার্যালয়ে পৌঁছালে দলটির দপ্তর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপের পক্ষে শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ের অফিস সহকারী মো. মাসুদ ও আলাউদ্দিন ঐক্যফ্রন্টের পুনরায় সংলাপ চেয়ে দেওয়া চিঠি গ্রহণ করেন।

এদিকে রবিবার সকালে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, সংলাপের মাধ্যমে বিএনপির সঙ্গে দূরত্ব কিছুটা ঘুচেছে। ছোট পরিসরে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে আলোচনা হতে পারে। তবে সংলাপে বেশি সময় নিতে চাই না।

তিনি বলেন, চিকিৎসার জন্য বেগম খালেদা জিয়ার প্যারোলে মুক্তির বিষয়ে বিএনপি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করতে পারে। একই সময়ে সভা-সমাবেশ সম্পর্কে তিনি বলেন, সভা-সমাবেশ করতে বাধা নেই।