পাঁচবিবিতে ৭ম শ্রেণীর ছাত্রী নিখোঁজের একদিন পর উদ্ধার

জয়পুরহাটের পাঁচবিবি উপজেলার বাগজানায় নিখোঁজের একদিন পর ৭ম শ্রেণী পড়ুয়া এক ছাত্রীকে উদ্ধার করা হয়েছে।

 

এলাকাবাসী সুত্রে জানা যায়,বাগজানা নদীর ধার এলাকার কেরামত আলীর পুত্র আপেল হোসেন দীর্ঘদিন ধরে বাগজানার খোর্দ্দা গ্রামে বসবাস করে মাদক ব্যবসা চালিয়ে আসছে। এরই ধারাবাহিকতায় বিভিন্ন জনের সাথে সুসম্পর্ক গড়ে তোলে।এরুপ সম্পর্ক গড়ে তোলে খোর্দ্দা গ্রামের নরোত্তম দাসের সঙ্গে। নরোত্তাম দাসের সঙ্গে সর্ম্পকের জের ধরেই তার স্কুল পড়ুয়া মেয়ের সাথে প্রেমের সর্ম্পক গড়ে তোলে। সম্পর্কের এক পর্যায়ে গত শুক্রবার দিবাগত রাত ৮ টার দিকে নরোত্তম দাসের নাবালিকা কন্যা ও বাগজানা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণীতে পড়ুয়া মেয়েকে নিয়ে উধাও হয়॥

ঘটনার দিন থেকে অনেক জায়গায় খোঁজাখুঁজির পর শনিবার রাতে মেয়েটিকে বগুড়ার দুপচেচিয়া থেকে সেখানকার মেম্বারের সহায়তায় উদ্ধার করে পাঁচবিবি থানায় আনা হয় এবং ঘটনাস্থল থেকে আপেল হোসেন পালিয়ে যায়।

 

এবিষয়ে বাগজানা ইউনিয়নের প্যানেল চেয়ারম্যান আরিফ হোসেন বলেন, ঘটনা সত্য। আমি এবিষয়ে অবগত আছি এবং থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

 

পাঁচবিবি থানা অফিসার ইনচার্জ বজলার রহমানকে জিজ্ঞাসা করলে তিনি জানান, মেয়েটিকে উদ্ধার করে থানা রাখা হয়েছে। আসমী আপেল পালাতক। তিনি আরো জানান মেয়ে পক্ষ এখনও কোন অভিযোগ দায়ের করে নাই,অভিযোগ পাওয়া মাত্র মামলা দায়ের করে তাকে গ্রেপ্তারের করবো।