খাশোগি হত্যা: মার্কিন নিষেধাজ্ঞা ১৭ সৌদি কর্মকর্তার ওপর

সাংবাদিক জামাল খাশোগি হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকা ১৭ সৌদি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে যুক্তরাষ্ট্র। বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রের অর্থ মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে এ ঘোষণা দেয়। এদের মধ্যে সৌদি প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমানের ঘনিষ্ঠ সহযোগী সৌদি আল কাহতানি ও সৌদি কাউন্সেল জেনারেল মোহাম্মদ আলোতায়িবিও রয়েছেন। সৌদি আরবের প্রধান প্রসিকিউটর খাশোগি হত্যায় জড়িত ১১ সন্দেহাজনের মধ্যে পাঁচজনের মৃত্যুদণ্ডের সুপারিশ করার পর এই নিষেধাজ্ঞা আরোপ করল যুক্তরাষ্ট্র। খবর নিউইয়র্ক পোস্ট’র।।

 

‘গ্লোবাল ম্যাগনিটস্কি হিউম্যান রাইটস একাউন্টেবিলিটি অ্যাক্ট’ এর আওতায় এ নিষেধাজ্ঞা বাস্তবায়ন করা হবে। মানবাধিকারের মারাত্মক লঙ্ঘন এবং দুর্নীতির মতো অপরাধের ক্ষেত্রে এ আইনের আওতায় নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়ে থাকে।

 

২ অক্টোবর বিয়ের কাগজপত্র আনতে তুরস্কের ইস্তানবুলের সৌদি কনস্যুলেটে গেলে তাকে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়।

 

নিষেধাজ্ঞার আওতায় অন্যদের মধ্যে আছেন, কাহতানির সহযোগী মাহের মুতারেব। এ বছর যুক্তরাষ্ট্র এবং ইউরোপে রাষ্ট্রীয় সফরকালে সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের সঙ্গে মুতারেবকে ছবিতে দেখা গেছে।

মার্কিন অর্থমন্ত্রী স্টিভ মিউচিন এক বিবৃতিতে বলেছেন, যারা যুক্তরাষ্ট্রে বাস করা একজন সাংবাদিককে টার্গেট করে খুন করেছে তাদেরকে তাদের কৃতকর্মের পরিণতি ভোগ করতেই হবে।

খাশোগি হত্যাকাণ্ড নিয়ে সৌদি আরব একাধিকবার তাদের বিবৃতি পাল্টেছে। সবশেষে সৌদি আরব এ হত্যা পরিকল্পিত ছিল বলেও স্বীকার করে।

মার্কিন অর্থমন্ত্রী বলেন, ওয়াশিংটন ঘটনাটি আসলেই কি ঘটেছে তা খতিয়ে দেখার চেষ্টা করছে। এ হত্যায় দায়ী প্রত্যেককেই জবাবদিহির আওতায় আনা হবে।