লাকসামে আবদুর রবের মৃত্যু হত্যা না আত্মহত্যা তা নিয়ে গুঞ্জন - খবর তরঙ্গ
শিরোনাম :

লাকসামে আবদুর রবের মৃত্যু হত্যা না আত্মহত্যা তা নিয়ে গুঞ্জন



আহসান উল্লাহ, (খবর তরঙ্গ ডটকম)

কুমিল্লার লাকসাম পূর্ব ইউপির ১নং ওয়ার্ড নরপাটি যুগীপাড়ায় ২০ সেপ্টেম্বর রবিবার ভোর রাতে রাজমেস্ত্রী আবদুর রবের হঠাৎ মৃত্যুু ঘিরে এলকার জনমনে নানাহ বির্তকের ঝড় বইছে।


ঘটনায় জানা যায়, ঐ ইউপির ১নং ওয়ার্ড যুগীপাড়া বৈরাগী বাড়ীর মৃত ইায়াছিন মিয়ার মেঝো ছেলে রাজমেস্ত্রী আবদুর রব (৫৫) আজ রবিবার গভীর রাতে নিজের বসত ঘরে ডুকে কাউকে কিছু না জানিয়ে খাটের পায়ার সাথে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যার করেছে বলে দাবী পরিবারের। তবে এ ঘটনাটি হত্যা না আত্মহত্যা তা নিয়ে রয়েছে এলাকায় নানাহ গুঞ্জন।


স্থানীয় লোকজন জানায়, ঘটনার দিন রাত প্রায় দেড়টা পর্যন্ত বাড়ির পার্শ্ববর্তী কামালের চা দোকানে আবদুর রব আইপিএল ক্রিকেট খেলা দেখছিলো।


রাত প্রায় তিনটার দিকে তার স্ত্রী সন্তানদের আত্মচিৎকার শুনে আশে-পাশের লোকজন এসে জানতে পারে রাজ মিস্ত্রী আব্দুর রব গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে।

সুত্র গুলো আরো জানায়, ৪সন্তানের জনক আবদুর রবের সংসারে আর্থিক টানাপোড়ন চলছিলো দীর্ঘদিন। সংসারের সার্বিক সমস্যা সহ দায়-দেনা নিয়ে স্ত্রী ফেরদৌসী বেগমের সাথে গত ১মাস ধরে ঝগড়া বিবাদ লেগেই আছে। সাংসারিক ঝামেলা নিয়েই আবদুর রবের আত্মহত্যার কারণ বলে ধরণা করছেন কেউ কেউ। আবার কেউ কেউ বলছেন ভিন্ন কথা। খবর পেয়ে লাকসাম থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে রাজমিস্ত্রী আবদুর রবের মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করেছে।


মৃত আবদুর রবের স্ত্রী ফেরদৌসি বেগম জানান, ঘটনার দিন শনিবার সন্ধায় কাজ শেষে বাড়ি এসে সংসারের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আমার সাথে কথা কাটা-কাটি হয় এবং তাৎক্ষনিক ঘর থেকে রাগ করে বাহিরে চলে যায়।


এরই মধ্যে সন্তানদের নিয়ে ঘুমিয়ে পড়ি। ভোর রাতে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে উঠে পাশের রুমের দরজা বন্ধ দেখে সন্দেহ হয়। এরপর ঢাকাডাকি করে কোন সাড়া শব্দ না পেয়ে সন্তানদেরকে ঘুম থেকে ডেকে তুলি এবং সেঝো ছেলে দরজার উপর দিয়ে বন্ধ রুমে ডুকে দরজা খুলে দেখতে পাই খাটের পায়ার সাথে গলায় ফাঁস লাগোনো আমার স্বামীর দেহ। এ অবস্থা দেখে চিৎকার দিয়ে আশপাশের লোকজন এসে স্বামীর ফাঁস দেয়া মরদেহ দেখতে পায়।


স্থানীয় ওয়ার্ড মেম্বার আবদুর মান্নান জানায়, ভোর রাতে খবর পেয়ে তাৎক্ষনিক ঘটনাস্থলে যাই এবং বিস্তারিত অবগত হই। সাথে সাথে চেয়ারম্যান, গন্যমান্য ব্যক্তি বর্গ ও পুলিশকে ঘটনাটি অবহিত করি। পর দিন রবিবার সকালে থানা পুলিশ এসে মরদেহ নিয়ে যায়।
এব্যাপারে লাকসাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নিজাম উদ্দীন জানায়, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁেছ আবদুর রবের মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপতালে প্রেরণ করেছে। ময়না তদন্ত রিপোর্ট প্রাপ্তি এবং পুলিশি তদন্ত স্বাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


উপজেলা এর অন্যান্য খবরসমূহ
কুমিল্লা এর অন্যান্য খবরসমূহ
জেলা এর অন্যান্য খবরসমূহ
লাকসাম এর অন্যান্য খবরসমূহ
পূর্বের সংবাদ