ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় খালেদার অনুপস্থিতিতে চলছে জেরা ও সাক্ষ্যগ্রহণ

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার অনুপস্থিতিতে শুরু হয়েছে জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার জেরা ও সাক্ষ্যগ্রহণ।

 

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্টের অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) দায়ের করা মামলা দু’টির বিচারিক কার্যক্রম চলছে রাজধানীর বকশিবাজারে কারা অধিদপ্তরের প্যারেড মাঠে স্থাপিত তৃতীয় বিশেষ জজ আবু আহমেদ জমাদারের অস্থায়ী আদালতে।

 

সোমবার সকাল দশটা ৪০ মিনিটে আদালতের কার্যক্রম শুরু হয়েছে। দেশে ফিরলেও পুরোপুরি  সুস্থ না হওয়ায় আদালতে অনুপস্থিতির জন্য দুই মামলায়ই খালেদা জিয়ার পক্ষে আবেদন জানান তার আইনজীবী অ্যাডভোকেট সানাউল্লাহ মিয়া।

 

আদালত খালেদার অনুপস্থিতির আবেদন মঞ্জুর করে জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার সাক্ষীর জেরা ও নতুন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণের আদেশ দেয়।

 

মামলাটির ২৭তম সাক্ষী (জব্দ তালিকার সাক্ষী) সোনালী ব্যাংকের প্রধান কার্যালয়ের ডিজিএম আব্দুল গফুরকে খালেদা জিয়ার পক্ষে জেরা শুরু করেছেন অ্যাডভোকেট আব্দুর রেজ্জাক খান। অন্য আসামিদের পক্ষে জেরা করবেন অ্যাডভোকেট টিএম আকবর ও অ্যাডভোকেট আমিনুল ইসলাম।

 

এরপর পর্যায়ক্রমে ২৮ থেকে ৩০তম সাক্ষী সোনালী ব্যাংকের এজিএম মো. হারুন অর রশীদ, মিরপুর শিল্প এলাকা শাখার ব্যবস্থাপক হারুন অর রশীদ ফকির, ব্যাংকের জিএম আমিন উদ্দিন আহমেদকে জেরা করবেন আসামিপক্ষের আইনজীবীরা। মামলাটির সর্বশেষ সাক্ষী তদন্তকারী কর্মকর্তা দুদকের উপ-পরিচালক হারুন অর রশিদও আদালতে হাজির আছেন।

 

পুরনো সাক্ষীদের জেরা শেষে তার সাক্ষ্যগ্রহণ করা হবে বলে জানিয়েছেন দুদকের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মোশাররফ হোসেন কাজল। মামলার বাদী ও প্রথম সাক্ষী হিসেবেও তিনি সাক্ষ্য দিয়েছেন। জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় এ পর্যন্ত সাক্ষ্য দিয়েছেন ৩০ জন সাক্ষী। তাদেরকে আসামিপক্ষের জেরা শেষ হয়েছে।

 

অন্যদিকে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় এ পর্যন্ত সাক্ষ্য দিয়েছেন বাদী ও প্রথম সাক্ষী দুদকের উপ-পরিচালক হারুন-অর-রশিদ। তাকে আসামিপক্ষের জেরা বাকি রয়েছে। আগামী ১৪ জানুয়ারি এ জেরা ও নতুন সাক্ষীদের সাক্ষ্যগ্রহণের দিন ধার্য রয়েছে।

 

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় মোট আসামি চারজন। খালেদা ছাড়া অভিযুক্ত অপর তিন আসামি হলেন- খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক সচিব হারিছ চৌধুরী, হারিছ চৌধুরীর তৎকালীন একান্ত সচিব বর্তমানে বিআইডব্লিউটিএ’র নৌ-নিরাপত্তা ও ট্রাফিক বিভাগের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক জিয়াউল ইসলাম মুন্না এবং ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকার একান্ত সচিব মনিরুল ইসলাম খান।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।